পরীক্ষা নিয়ে জেলায় নজির গড়ল বিজড়া প্রাথমিক স্কুল

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটিও সাবস্ক্রাইব করে রাখুন বিভিন্ন আপডেট পাওয়ার জন্য।

সরকারি নিয়মে পরীক্ষা নেওয়ার দরকার নেই। কিন্তু পড়ুয়ারা কতটা শিখল, তাদের কোন কোন জায়গায় দুর্বলতা রয়েছে তা বুঝে নিয়ে খামতি পূরণ করতে পরীক্ষা নিচ্ছে দুর্গাপুরের বিজড়া প্রাথমিক স্কুল। জেলায় সম্ভবত প্রথম কোনও প্রাথমিক স্কুলের এই প্রয়াস।

মার্চ মাসের শেষ থেকে স্কুল বন্ধ কোভিড পরিস্থিতির জন্য। রাজ্য সরকারের সিদ্ধান্ত, এবার পড়ুয়াদের সবাই উঠে যাবে পরের ক্লাসে। তবে বিজড়া প্রাথমিক স্কুল অভিভাবকদের পরীক্ষকের দায়িত্ব দিয়ে বার্ষিক পরীক্ষার আয়োজন করেছে।

স্কুল সূত্রে জানা গিয়েছে, চারটি বিষয়ের প্রশ্নপত্র রবিবার তুলে দেওয়া হয় অভিভাবকদের হাতে। সোমবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত, বাড়িতে বসে চারদিনে চারটি বিষয়ের পরীক্ষা দেবে পড়ুয়ারা। পরীক্ষকের ভূমিকায় থাকবেন অভিভাবকেরা। জেলার একাধিক হাইস্কুলে এই ধরণের পরীক্ষা নেওয়ার ব্যবস্থা করা হলেও কোনও প্রাথমিক স্কুলে এমন কোনও পরীক্ষা নেওয়ার খবর এখন পর্যন্ত প্রকাশ্যে আসেনি।

স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক অনির্বাণ বাগচি জানান, মসজিদে নামাজ পাঠের সময় লাউডস্পিকারে ঘোষণা করে পড়ুয়াদের অভিভাবকদের রবিবার স্কুলে হাজির হতে বলা হয়। এদিন তাঁরা স্কুলে এলে তাঁদের হাতে প্রশ্নপত্র তুলে দেওয়া হয়। পরীক্ষক হিসাবে তাঁদের ভূমিকা কি তা স্পষ্ট করে বুঝিয়ে দেওয়া হয়। শুক্রবার ও শনিবার যখন তাঁরা মিড ডে মিলের সামগ্রী নিতে আসবেন, তখন ছেলে-মেয়েদের উত্তরপত্রও জমা দিয়ে যাবেন স্কুলে।

 

স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকা সুকমল সাহা, সোমা পাল, দেবাশিস বেরা, শুক্লা সাহা, মহুয়া দত্ত-রা জানান, লকডাউনের সময়ে অ্যাক্টিভিটি টাস্ক দেওয়া হয়েছিল। তা অনুশীলন করেছিল পড়ুয়ারা। অনলাইনেও কিছু পঠন-পাঠন হয়েছিল। জেরক্স করে স্টাডি মেটিরিয়াল দেওয়া হয়েছিল। এবার পরীক্ষা নিয়ে কোনও ঘাটতি রয়েছে কিনা তা জেনে সেগুলি কিভাবে পূরণ করা যাবে সে ব্যাপারে উদ্যোগ নেওয়া হবে।

https://durgapur24x7.com/pen-and-horlics-as-gifts-with-answer-scripts-in-mamc-modern-high-school/

aamarvlog

শিক্ষা, সংস্কৃতি, স্বাস্থ্য, রান্না সহ আরও নানা কিছু। আমার ব্লগ- হাবি জাবি নয়। যোগাযোগ- ফোন ও হোয়াটসঅ্যাপ- 9434312482 ই-মেইল- [email protected]

Feedback is highly appreciated...

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: