মিড-ডে মিলের বাজে ছোলা নিলেন না অভিভাবকদের একাংশ

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটিও সাবস্ক্রাইব করে রাখুন বিভিন্ন আপডেট পাওয়ার জন্য।

মিড মিলের জন্য যে ছোলা রাজ্য থেকে সরবরাহ করা হয়েছে তা অত্যন্ত নিম্নমানের। এমন অভিযোগ আগেই তুলেছিল উস্থি ইউনাইটেড প্রাইমারি টিচার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন। প্রশাসনকে বিষয়টি জানিয়ে ই-মেলও করেছিল সংগঠন।

৮ সেপ্টেম্বর ছিল মিড-ডে মিল বিলির প্রথম দিন। অভিভাবকদের অনেকেই ছোলা না নিয়ে বাড়ি চলে যান। এমনকি তাঁরা প্রশাসনের কাছে অভিযোগও জানান।

আগস্টে মিড-ডে মিলে পড়ুয়াদের প্রথম বারের মতো মাথা পিছু এক কেজি করে ছোলা দেওয়া হয়। সেজন্য বরাদ্দ করা হয়েছিল কেজি প্রতি ৬৫ টাকা। সেই টাকায় স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকারা নিজেরা বাজার থেকে ছোলা কিনে মিড ডে মিলে দেন। অভিভাবকেরা ছোলা নিয়ে যান।

সেপ্টেম্বরে মিড-ডে মিলের ছোলা রাজ্য সরকার সরবরাহ করে। উস্থি ইউনাইটেড প্রাইমারি টিচার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের পশ্চিম বর্ধমান জেলার কনভেনার ভাস্কর ঘোষ বলেন, যে ছোলা এসেছে তার গুণমান এতটাই খারাপ যে অভিভাবকদের অনেকেই নিতে চাননি। এই ছোলার দাম কেজি প্রতি ৩৫-৪০ টাকার বেশি নয়।

তিনি জানান, দুর্গাপুর-ফরিদপুর ব্লকের বহু স্কুলের অভিভাবকেরা ব্লক প্রশাসনের কাছে এদিন লিখিত অভিযোগ জানিয়েছেন। বাচ্চাদের জন্য বরাদ্দ খাদ্যদ্রব্যের গুণমান নিয়ে সংশ্লিষ্ট দফতরের আরও সচেতন থাকা দরকার, এমন জানিয়েছেন অভিভাবকেরা।

https://durgapur24x7.com/local-procurement-of-chhola-for-mid-day-meal-in-december/

aamarvlog

শিক্ষা, সংস্কৃতি, স্বাস্থ্য, রান্না সহ আরও নানা কিছু। আমার ব্লগ- হাবি জাবি নয়। যোগাযোগ- ফোন ও হোয়াটসঅ্যাপ- 9434312482 ই-মেইল- [email protected]

Feedback is highly appreciated...

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: