চল্লিশে চালসে!

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটিও সাবস্ক্রাইব করে রাখুন বিভিন্ন আপডেট পাওয়ার জন্য।

চোখ নিয়ে আমরা সবাই খুব সংবেদনশীল। কারণ, চোখ না থাকলে রঙিন পৃথিবীটার অস্তিত্বই আমরা উপলব্ধি করতে পারব না। তাই বড় হওয়ার পরে চোখে সামান্য সমস্যা হলে আমরা গেল গেল রব তুলি। মনে হয় যেন, জীবন কেমন যেন বেরঙিন হয়ে যাচ্ছে। দুশ্চিন্তা করবেন না। চোখে কোনও রকম সমস্যা বুঝতে পারলে কি করতে হবে তা নিয়েই এই প্রতিবেদন।

কথায় আছে না, চল্লিশে চালসে! ভুল কিছু নয়। চল্লিশ পেরোলেই কিন্তু চোখ পরীক্ষা করে নেওয়া দরকার। তা না হলে দেরিতে সমস্যা ধরা পড়লে তা সারতেও সময় নেবে অনেক বেশি। তাই সার্জারি এড়াতে আগে থেকে ডাক্তারের সঙ্গে যোগাযোগ করে নেওয়াই ভালো। তবে যদি সমস্যা তার আগেই জটিল হয়ে যায়, তাহলেও চিন্তার কিছু নেই বলছেন ডাক্তাররা।

 

ছানি ধরা পড়লে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তা দূর করা দরকার। কারণ, যত দেরি হবে, পর্দাটি তত পুরু হবে। ফলে সার্জারিও জটিল হবে। তবে এখন যন্ত্রণা ছাড়া সার্জারির উপায় বেরিয়ে গিয়েছে। তাই দুশ্চিন্তার কারণ নেই। ফ্যাকো সার্জারি এবং লেজার টেকনোলজির সাহায্যে চোখে একটি ছোট্ট ছিদ্র তৈরি করে খুব সহজেই নিরাপদে ছানি সরিয়ে ফেলা যায়। মাত্র দশ, পনেরো মিনিটেই পুরো সার্জারি হয়ে যায়। সেদিনই হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরে যেতে পারেন রোগী। যন্ত্রণার কোনও প্রশ্নই নেই। তাই বাড়িতে গিয়ে ২-৩ দিনের মধ্যেই স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারেন রোগী। বিশ্রামের দরকার পড়ে না।

আমাদের চোখের লেন্স স্বচ্ছ কাচের জানলার মতো, যার মধ্য দিয়ে আলো যাতায়াত করতে পারে। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে সেই কাচের জানলার সামনে একটি পর্দা চলে আসে। ফলে আগের মতো আলো যাতায়াত করতে পারে না। ফলে সব অস্পষ্ট দেখায়। এটাই হল চোখে ছানি পড়া। সাধারণত ৪০ বছরের পর থেকে ছানি পরা শুরু হয়। চোখ থেকে ক্রমাগত জল পড়ে। চোখ খুব ভারি মনে হয়। বয়স ছাড়াও বংশগত কারণ, ডায়াবেটিসের সমস্যার মতো কারণেও ছানি পরতে পারে। সেই সময় কম আলোয় দেখতে অসুবিধা হয়। রাতে গাড়ি চালাতে সমস্যা হয়। যত দিন যাবে তত দৃষ্টিশক্তি কমবে। কোনও কাজ তখন আর ঠিক করে হবে না। তাই, ফের স্পষ্ট দেখতে হলে লেন্সের উপরে পরা সেই পর্দাটি সরানোর ব্যবস্থা করা দরকার।

সার্জারির সময় সাধারণত মনোফোকাল লেন্স ইমপ্ল্যান্ট করা হয়। তাই সার্জারির পরে বই বা খবরের কাগজ পড়তে চশমার দরকার পড়ে। তবে সার্জারির পরে চশমা পড়ার দরকার পড়ে না, এমন লেন্সও এসে গিয়েছে। তাই চোখে দেখতে সমস্যা হচ্ছে বলে দুশ্চিন্তায় পড়ার কোনও কারণ নেই। ছানি পড়লেও ভয় পাওয়ার কিছু নেই। শুধু চেষ্টা করতে হবে, যত দ্রুত সম্ভব সার্জারি করে ফেলতে হবে। একবার ছানি কেটে সরিয়ে দিলেই আবার আগের মতো দৃষ্টিশক্তি ফিরে আসে। ফিরে আসে জীবনের স্বাভাবিক ছন্দ।   

aamarvlog

শিক্ষা, সংস্কৃতি, স্বাস্থ্য, রান্না সহ আরও নানা কিছু। আমার ব্লগ- হাবি জাবি নয়। যোগাযোগ- ই-মেইল- arpita.andal@gmail.com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *