কাউন্সিলর বিজেপিতে গিয়েছেন, রাজ্য সরকারের ত্রাণের চাল তাঁকে বিলি করতে দেওয়া হবে না

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটিও সাবস্ক্রাইব করে রাখুন বিভিন্ন আপডেট পাওয়ার জন্য।

দুর্গাপুর দর্পণ, দুর্গাপুর, ২৪ মে ২০২১: দুর্গাপুরের ৪ নম্বর বরোর চেয়ারম্যান তৃণমূল কাউন্সিলর সুনীল চট্টোপাধ্যায় জানিয়ে দিয়েছেন, ৪৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর চন্দ্রশেখর বন্দ্যোপাধ্যায় তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। তাই তাঁকে রাজ্য সরকারের দেওয়া ত্রাণের চাল বিলি করতে দেওয়া হবে না। তিনি সই করে দেবেন। কিন্তু চাল বিলি করবেন তৃণমূলের কর্মীরা। চন্দ্রশেখরবাবু বিজেপির কাছ থেকে চাল এনে বিলি করুন। এই সিদ্ধান্তে তীব্র বিতর্ক শুরু হয়েছে।

দেখুন সেই তরজার ভিডিও

রাজ্য সরকার অতিমারি পরিস্থিতিতে দুস্থদের দেওয়ার জন্য ত্রাণের চাল পাঠিয়েছে। দুর্গাপুরের সব ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সই করে তাঁদের ভাগের চাল তুলে নিয়ে গিয়েছেন। কিন্তু চন্দ্রশেখরবাবু সোমবার চাল নিতে এলে তাঁকে চাল দেওয়া যাবে না বলে কয়েকজন তৃণমূল কর্মী দাবি করেন। তাঁদের বক্তব্য, চন্দ্রশেখরবাবু চাল নিয়ে গিয়ে নয়ছয় করবেন। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে বরো অফিসের সরকারি আধিকারিক চাল দেননি। তিনি বিষয়টি বরো চেয়ারম্যান সুনীলবাবুকে জানান।

সুনীলবাবু জানিয়ে দেন, কোনওভাবেই চন্দ্রশেখরবাবুকে চাল দেওয়া যাবে না। উনি চাল কাকে দেবেন তার ঠিক নেই। তিনি বলেন, ‘‘প্রকৃত দুঃস্থ যাঁরা তাঁদের হাতে চাল তুলে দিতে চাই আমরা।’’ চন্দ্রশেখরবাবু জানান, তাঁর কাছে ওয়ার্ডের দুঃস্থ মানুষজনের তালিকা রয়েছে। তিনি বলেন, ‘‘এটা তো রাজনীতির বিষয় নয়। মুখ্যমন্ত্রী চাল পাঠিয়েছেন। সেই চাল জনপ্রতিনিধি হিসাবে বিলি করব। আমি বিষয়টি মেয়র ও ডেপুটি মেয়রকে জানিয়েছি।’’ সুনীলবাবু সাফ বলেন, ‘‘মুখ্যমন্ত্রীকে ‘বেগম’ বলে কটাক্ষ করার সময় খেয়াল ছিল না? এখন এসেছেন মুখ্যমন্ত্রীর দেওয়া চাল বিলি করতে! উনি বিজেপির কাছ থেকে চাল এনে বিলি করুন। আমরা চাল দেব না।’’

aamarvlog

শিক্ষা, সংস্কৃতি, স্বাস্থ্য, রান্না সহ আরও নানা কিছু। আমার ব্লগ- হাবি জাবি নয়। যোগাযোগ- ফোন ও হোয়াটসঅ্যাপ- 9434312482 ই-মেইল- [email protected]

Feedback is highly appreciated...

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: