প্রথম দিনের প্রচারেই বিতর্কে গলসির বিজেপি প্রার্থী বিকাশ বিশ্বাস

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটিও সাবস্ক্রাইব করে রাখুন বিভিন্ন আপডেট পাওয়ার জন্য।

দুর্গাপুর দর্পণ, দুর্গাপুর, ২ এপ্রিল ২০২১ঃ গলসির বিজেপির নতুন প্রার্থী শুক্রবার পানাগড় গ্রামে চায়ে পে চর্চার মধ্য দিয়ে প্রচার শুরু করলেন। কিন্তু তাঁর প্রথম দিনের প্রচারেই তৈরি হল বিতর্ক। ব্যানারে থাকা শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জীর ছবি ইট ও জলের বোতল দিয়ে ঢেকে দিয়ে বিজেপি প্রার্থী শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জীকে অসম্মান করছেন বলে অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল। বিজেপি প্রার্থী অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন।

দেখুন ভিডিও

আগামী ২২ এপ্রিল ষষ্ঠ দফায় ভোটগ্রহণ হবে গলসি কেন্দ্রে। গলসিতে বিজেপি প্রথমে প্রার্থী করেছিল তপন বাগদিকে। দশদিন প্রচার করার পরে মনোনয়ন জমা দিতে গিয়ে তিনি জানতে পারেন, তাঁর জায়গায় অন্য একজনকে প্রার্থী ঘোষণা করা হয়েছে। তিনি যেন মনোনয়ন জমা না দেন।  তপনবাবু প্রার্থী হওয়ার পরে ২০১৪ সালে তাঁর বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া শ্লীলতাহানির এক অভিযোগ নিয়ে পানাগড় ও গলসিতে তাঁর বিরুদ্ধে পোস্টার পড়ে। যদিও তপনবাবুর দাবি, শাসক দল মিথ্যা মামলায় তাঁকে ফাঁসিয়েছে। এরপরেই বর্ধমানের পার্টি অফিসে ডেকে বর্ধমান-দুর্গাপুরের সাংসদ এসএস আলুওয়ালিয়া তাঁকে প্রচার করা থেকে বিরত থাকতে বলেছিলেন। বলেছিলেন, মনোনয়ন জমা না দিতে। তবু তিনি প্রচার চালিয়ে যেতে থাকেন। তবে মনোয়নন জমা দেওয়ার সময় তাঁকে আটকে দেওয়া হয়।

তপনবাবুর পরিবর্তে প্রার্থী করা হয়েছে অযোধ্যা হাইস্কুলের শিক্ষক বিজেপির শিক্ষা সেলের নেতা বিকাশ বিশ্বাসকে। শুক্রবার তিনি পানাগড় গ্রামে চায়ে পে চর্চায় যোগ দেন। সেখানে টেবিলের উপর থেকে একটি ব্যানার ঝোলানো ছিল। ব্যানারে থাকা শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জীর ছবি ঢাকা পড়ে যায় জলের বোতলে। যা নিয়ে কটাক্ষ করতে ছাড়েনি তৃণমূল। দলের কাঁকসা ব্লক সভাপতি দেবদাস বক্সী বলেন, “বিজেপি মুখে শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জীকে আদর্শ বলে। কিন্তু কাজে করে না। সবটাই দেখনদারি। যেভাবে শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জীর মুখের ছবি জলের বোতল দিয়ে ঢেকে দেওয়া হয়েছে তা অত্যন্ত নিন্দনীয়।”  তিনি আরও বলেন, “বিজেপি প্রার্থী আগে সিপিএমের সঙ্গে ছিলেন। পরে তৃণমূলে আসেন। এখন বিজেপিতে। তাঁকে কেউ বিশ্বাস করেন না!”

বিজেপি প্রার্থী বিকাশবাবু বলেন, “অভিযোগ করা ছাড়া তৃণমূলের এখন আর কোনও কাজ নেই। ব্যানার বাতাসে উড়ে যাবে বলে জলের বোতল রাখা হয়েছিল। মানুষ তৃণমূলের পাশে নেই। বিধানসভায় গোহারান হারবে, সেটা বুঝে গিয়েছে। তাই এখন উল্টোপাল্টা বলে বাজার গরম করছে। ওসব করে কোনও লাভ হবে না। শেষ হাসি হাসবো আমরাই।”

আরও পড়ুন- গলসিতে প্রার্থী বদল নিয়ে চরম বিড়ম্বনায় বিজেপি কর্মীরা

 

 

aamarvlog

শিক্ষা, সংস্কৃতি, স্বাস্থ্য, রান্না সহ আরও নানা কিছু। আমার ব্লগ- হাবি জাবি নয়। যোগাযোগ- ফোন ও হোয়াটসঅ্যাপ- 9434312482 ই-মেইল- [email protected]

Feedback is highly appreciated...

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: