স্কুলে নবম ও দশম শ্রেণীতে শেখানো হয় জার্মান ভাষা। দুর্গাপুর শহরেরই একটি স্কুলে প্রিন্সিপ্যাল নিজেই বিদেশি ভাষা শেখান ছাত্র-ছাত্রীদের।

পশ্চিম বর্ধমান জেলার দুর্গাপুরের সিটি সেন্টারে বিদ্যাসাগর মডেল স্কুল। প্রিন্সিপ্যাল সুচিন্ত্য চট্টোরাজ। তিনি বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজীতে এমএ করেন। পাশাপাশি জার্মান ভাষার বিশেষ ডিপ্লোমা করেন ২ বছরের। জার্মান ভাষার প্রতি তাঁর টান শুরু থেকেই। বাড়িতে নিয়মিত চর্চা করেন।

২০০৯ সালে তিনি এই স্কুলে প্রিন্সিপ্যাল হিসাবে যোগ দেন। তাঁর কাছে জার্মান শিখে তাঁর অনেক ছাত্র-ছাত্রী ততদিনে কেউ ইঞ্জিনিয়ারিং, কেউ মেডিক্যাল, কেউ বা আইটি সেক্টরে কাজ নিয়ে জার্মানি পাড়ি দিয়েছে। বিদেশে গিয়ে তাদের আর ভাষা সমস্যায় পড়তে হয়নি।

বিদ্যাসাগর মডেল স্কুলে যোগ দিয়ে সুচিন্ত্যবাবু সিদ্ধান্ত নেন, এই স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদেরও তিনি জার্মান ভাষা শেখাবেন। কারণ, এই স্কুলের কোনও পড়ুয়া যদি উচ্চশিক্ষা বা কর্মসূত্রে জার্মানি যায় তাহলে তার সুবিধা হবে। কারণ, জার্মানিতে জার্মান ভাষা সম্পর্কে প্রাথমিক জ্ঞান থাকা বিদেশীদের কদর বেশি।  

প্রথম দিকে পড়ুয়াদের সঙ্গে সাধারণ কথাবার্তার মধ্যে তিনি দু-একটি জার্মান শব্দ জুড়ে দিতেন। বিদেশী ভাষার শব্দের ছন্দ ছেলে-মেয়েদের আকর্ষণ করে। স্যারের কাছে তারা আবদার জুড়ে দেয়, স্যার, জার্মান ভাষা শিখব! অভিভাবকদের সঙ্গে আলোচনা সেরে নেন প্রধান শিক্ষক। ২০১৪ সালে দশম শ্রেণীর ৬০ জন পড়ুয়াকে নিয়ে শুরু হয় ক্লাস। পরে যোগ দেয় নবম শ্রেণীও।

সুচিন্ত্যবাবু জানান, মূলত কথ্য ভাষা শেখানোতেই জোর দেন তিনি। সঙ্গে প্রাথমিক ব্যকরণের পাঠ এবং লেখাও শেখানো হয়। তিনি বলেন, জার্মানি গিয়ে যাতে আমাদের স্কুলের ছেলে-মেয়েরা ভাষা সমস্যায় না পড়ে সেটাই চাই।

করোনার জেরে নতুন শিক্ষাবর্ষে স্কুলে আসা হয় না পড়ুয়াদের। ফলে জার্মান ক্লাস পুরোপুরি বন্ধ। দশম শ্রেণীর সময় ক্রমশ শেষ হয়ে যাচ্ছে। সেটাই আক্ষেপ প্রিন্সিপ্যালের।

By aamarvlog

শিক্ষা, সংস্কৃতি, স্বাস্থ্য, রান্না সহ আরও নানা কিছু। আমার ব্লগ- হাবি জাবি নয়। যোগাযোগ- ফোন ও হোয়াটসঅ্যাপ- 9434312482 ই-মেইল- [email protected]

Feedback is highly appreciated...

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: