কয়লাকান্ডে এবার গ্রেফতার বাঁকুড়ার সার্কেল ইনস্পেক্টর অশোক মিশ্র

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটিও সাবস্ক্রাইব করে রাখুন বিভিন্ন আপডেট পাওয়ার জন্য।

দুর্গাপুর দর্পণ ডেস্ক, ৪ এপ্রিল ২০২১: কয়লাকাণ্ডে (Coal Smuggling Case) এই প্রথম গ্রেফতার করা হল কোনও পুলিশ কর্তাকে। বাঁকুড়ার সার্কেল ইন্সপেক্টর অশোক মিশ্রকে (Ashok Mishra) গ্রেফতার করল ইডি (ED)। এর আগে তাঁকে কয়েক দফা জেরা করেছিল সিবিআই। শনিবার তাঁকে দিল্লিতে ডেকে জেরা করে ইডি। তদন্তে অসহযোগিতার অভিযোগে রাত ১১ টা নাগাদ তাঁকে গ্রেফতার করে ইডি।

তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ, বাঁকুড়ার সার্কেল ইন্সপেক্টর পদে থাকাকালীন পুলিশের গাড়িতে করে তিনি কয়লা পাচারের টাকা কলকাতার বিভিন্ন ব্যবসায়ীর কাছে পাঠাতেন। তাঁর সঙ্গে বহু প্রভাবশালী ব্যক্তির যোগ রয়েছে। তাঁকে আদালতে তুলে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে জেরা করতে চায় ইডি। জেরায় কয়লা পাচার কান্ডের মামলার বহু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য মিলবে বলে মনে করছেন ইডির আধিকারিকরা। এর আগে আসানসোল-দুর্গাপুরের প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার তথা কলকাতা পুলিশের অ্যাডিশনাল সিপি লক্ষ্মীনারায়ণ মিনাকে নোটিশ পাঠায় সিবিআই। তিনি সিবিআই দফতরে হাজিরা দেন। চন্দননগরের ডিসিপি তথাগত বসুকে জেরা করেছিল ইডি। তবে পুলিশের কাউকে গ্রেফতার এই প্রথম।

বেআইনি কয়লা খাদান থেকে কয়লা তুলে পাচারের অভিযোগ রয়েছে অনুপ মাঝি ওরফে লালার বিরুদ্ধে। তার এই সিন্ডিকেটের সঙ্গে যুক্ত রাজ্যের ‘প্রভাবশালী’ কয়েকজন। কয়লা পাচারের টাকা ঘুরপথে তাঁদের কাছে লালা পৌঁছে দিত বলে অভিযোগ। পাচারের সঙ্গে নাম জড়িয়ে গিয়েছে তৃণমূলের যুব নেতা বিনয় মিশ্র এবং তাঁর ভাই বিকাশ মিশ্রের। ইতিমধ্যেই বিকাশকে ইডি গ্রেফতার করছে। তার ও লালার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। বিনয় মিশ্রের নামে রেড কর্নার নোটিস জারি করেছে সিবিআই। তার বিরুদ্ধে লুক আউট নোটিসও জারি করা হয়েছে। পুলিশ আধিকারিক অশোক মিশ্র বিনয় মিশ্রের আত্মীয় বলে জানা গিয়েছে। যদিও তৃণমূলের অভিযোগ, বিধানসভা ভোটকে টার্গেট করেই সিবিআই কয়লাকান্ডে তৎপর হয়েছে।

আরও পড়ুন- কয়লাকান্ডে লালাকে তিনদিন জেরা, সন্তুষ্ট নয় সিবিআই

 

aamarvlog

শিক্ষা, সংস্কৃতি, স্বাস্থ্য, রান্না সহ আরও নানা কিছু। আমার ব্লগ- হাবি জাবি নয়। যোগাযোগ- ফোন ও হোয়াটসঅ্যাপ- 9434312482 ই-মেইল- [email protected]

Feedback is highly appreciated...

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: