স্কুটারে চড়িয়ে মাকে নিয়ে ভারতভ্রমণে বেরিয়েছেন মাইসুরুর দক্ষিণমূর্তি কৃষ্ণ কুমার,

‘গল্প’ হলেও সত্যি !

খবরের কাগজ খুললেই বৃদ্ধ বাবা-মাকে সন্তানের অবহেলার খবর। টিভিতেও তাই। আশপাশের এলাকাতে কান পাতলেও এমন খবর ভেসে আসে। তার মধ্যেই সম্পূর্ণ উল্টো পথে হেঁটে ভারতের কর্ণাটকের মাইসুরু বা মাইসোরের দক্ষিণামূর্তি কৃষ্ণ কুমার যে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন তা সবার কাছেই প্রশংসা কুড়িয়েছে।

সত্তর বছরের মাকে স্কুটারের পিছনে বসিয়ে দেশের বিভিন্ন তীর্থস্থান ঘুরিয়ে দেখাতে বেরিয়েছেন দক্ষিণামূর্তি কৃষ্ণ কুমার। তাঁর কথায়, ‘মাতৃসেবা সংকল্প যাত্রা’। বছর চল্লিশের কৃষ্ণ কুমার বাবা-মায়ের একমাত্র সন্তান। কর্মসূত্রে থাকতেন ব্যাঙ্গালুরুতে। বছর চারেক আগে বাবা মারা যাওয়ার পরে মা চুড়ারত্নাকে নিজের কাছে নিয়ে গিয়ে রাখেন। মায়ের সঙ্গে গল্প করতে করতে তিনি জানতে পারেন, তাঁদের মাইসোরের বাড়ির কাছের বেলুড়, হালেবিডু মন্দির মা কোনও দিন দেখেননি। দূরের কোনও তীর্থস্থান তো পরের কথা! তাঁর মা সারা জীবন সংসারের কাজ নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন। তাঁদের যৌথ পরিবার। রান্নাবান্না অনেক। তার উপর অন্যান্য কাজ তো আছেই। তাই কোনও দিন তিনি বাড়ি থেকে বেরোনোর সুযোগ পাননি।

মায়ের কথা ভেবে খুব কষ্ট পান তিনি। ঠিক করেন, চাকরি করে জমানো অর্থে তিনি দেশের সব তীর্থস্থান মাকে ঘুরিয়ে দেখাবেন। চাকরি ছেড়ে দেন তিনি। তাঁর বাবা প্রায় ২০ বছর আগে তাঁকে একটি স্কুটার উপহার দিয়েছিলেন। সেই স্কুটারেই মাকে নিয়ে ২০১৮ সালের ১৬ জানুয়ারি বেরিয়ে পড়েন। সব রাজ্যের ছোট, বড় সব তীর্থক্ষেত্রে ঘুরছেন তিনি। সারাদিন চলার পরে রাতে আশ্রয় নেন তীর্থস্থানের কোনও অতিথি নিবাসে। মাসের পর মাস তাঁরা দু’জনে এভাবেই ঘুরে বেড়াচ্ছেন। ৫০ হাজারের বেশি কিলোমিটার তাঁরা ঘুরেছেন এখন পর্যন্ত। টুইটারে তাঁদের এই কাহিনী জানতে পেরে আপ্লুত হন মাহিন্দ্র কোম্পানির কর্ণধার আনন্দ মাহিন্দ্রা। তিনি টুইট করে জানান, দক্ষিণামূর্তি কৃষ্ণ কুমারের মায়ের প্রতি ভালোবাসা, দেশের প্রতি ভালোবাসায় তিনি মুগ্ধ। তাই তাঁকে তিনি একটি মাহিন্দ্রা গাড়ি দিতে চান যাতে পরের বার মাকে তিনি আরামদায়কভাবে দেশভ্রমণে নিয়ে যেতে পারেন।

   সামান্য দু’বেলা দু’মুঠো আহারের জন্য সন্তানের বিরুদ্ধে আদালতে যেতে হচ্ছে বৃদ্ধ বাবা-মাকে। সন্তানের হাতে বাবা-মায়ের নিগ্রহের ঘটনা তো অহরহ কানে আসে। কিসের জন্য যে মানুষ ছুটছে তা সে নিজেই জানে না। তা না হলে জন্মদাতা ও জন্মদাত্রীর প্রতি এমন ব্যবহার কিভাবে করে ছেলে-মেয়েরা? দক্ষিণামূর্তি কৃষ্ণ কুমারের এই ‘গল্প’ কি পারবে সেই সব সন্তানের চেতনার উন্মেষ ঘটাতে? উত্তর অজানা।

aamarvlog

শিক্ষা, সংস্কৃতি, স্বাস্থ্য, রান্না সহ আরও নানা কিছু। আমার ব্লগ- হাবি জাবি নয়। যোগাযোগ- ফোন ও হোয়াটসঅ্যাপ- 9434312482 ই-মেইল- [email protected]

Feedback is highly appreciated...

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: