Feature Phones: কেন জনপ্রিয়তা বাড়ছে ফিচার ফোনের?

Feature Phones. স্মার্ট ফোনের যুগে গত কয়েক বছর ধরে নতুন করে জনপ্রিয়তা পেতে শুরু করেছে ‘ফিচার ফোন’। অনেক ক্রেতাই এখন স্মার্ট ফোনের বিকল্প খুঁজছেন। আকারে ছোট, ওজনে হালকা এবং স্মার্টফোনের চেয়ে অনেক কম দামে পাওয়া যায় ফিচার ফোন। হারিয়ে গেলেও বড় ক্ষতির সম্ভাবনা থেকে রেহাই। এই ফোন থেকে যেমন কথা বলা যায়, তেমনই মেসেজ করা যায়, এফএম রেডিও শোনা যায়, কোনওটিতে আবার অল্পস্বল্প ইন্টারনেট ব্যবহারের সুযোগও থাকে।

আর সব থেকে ইতিবাচক দিক, হল ব্যাটারি দীর্ঘায়ু হওয়ায় একবার চার্জ দিলে বেশ কয়েকদিন নিশ্চিন্ত হওয়া যায়। সেখানে স্মার্ট ফোনে দিনে একাধিকবার চার্জ দিয়েও সামলানো যায় না! তাছাড়া ক্রমাগত স্মার্ট ফোন ব্যবহারে মানসিক উদ্বেগ, সামাজিক বিচ্ছিন্নতা বাড়াচ্ছে বলে অনেকে মনে করেন। সারাক্ষণ চোখ বা মন থাকে নোটিফিকেশন বা সোশ্যাল মিডিয়ার দিকে। ফিচার ফোনে এসব প্রায় কিছুই নেই। অথচ সবার সঙ্গে যোগাযোগেরও কোনও অসুবিধা নেই।

Feature Phones এর বাড়তি চাহিদা পূরণের জন্য বিভিন্ন কোম্পানি নতুন করে নানা মডেল নিয়ে হাজির হচ্ছে। এক সময়ে ফিচার ফোনের বাজারে একচেটিয়া ছিল নোকিয়া। স্মার্ট ফোনের রমরমার যুগে ফিচার ফোন তৈরি বন্ধ করে দিয়েছিল সংস্থাটি। পরে নতুন রূপে হাজির হয়ে ফের ফিচার ফোন তৈরিতে মন দিয়েছে সংস্থাটি। দেড় হাজার টাকারও কম দামে একাধিক ফিচার ফোন নিয়ে এসেছে সংস্থাটি।

নোকিয়া ফিচার ফোন সেরা অফার


অনেকেই তাই একটি স্মার্টফোনের পাশাপাশি নোকিয়ার একটি ফিচার ফোনও সঙ্গে রাখছেন। কথা বলার জন্য ফিচার ফোনটি ব্যবহার করছেন। অন্যদিকে সোশ্যাল মিডিয়া বা ইন্টারনেটের কাজকর্মের জন্য স্মার্টফোনটি ব্যবহার করছেন। আপনিও সেভাবে ভাবতে পারেন। দেখবেন অনেক মানসিক শান্তিতে থাকতে পারবেন।

Candy Land The Sweets Game. অত্যন্ত জনপ্রিয় গেম

Leave a Comment

error: Content is protected !!