রসগোল্লা দিবস পেরিয়ে গেল, খোঁজ নিল না বাঙালি!

বাঙালির রসগোল্লা প্রেম সুবিদিত। কিন্তু করোনা পরিস্থিতিতে সব কেমন যেন গোলমাল হয়ে যাচ্ছে!

[bctt tweet=”রসগোল্লা দিবস হল ১৪ নভেম্বর।”]

বাংলার রসগোল্লা জিওগ্রাফিক্যাল ইন্ডিকেশন বা জিআই-স্বীকৃতি পায় ২০১৭ সালের ১৪ নভেম্বর। তারপর থেকে এই দিনটিকে ‘রসগোল্লা দিবস’ হিসাবে পালন করে পশ্চিমবঙ্গ মিষ্টান্ন ব্যবসায়ী সমিতি।

এদিন বহু প্রতিষ্ঠিত দোকানে রসগোল্লায় ছাড় এমনকি বিনামূল্যে রসগোল্লা খাওয়ানোরও ব্যবস্থা করা হয়ে থাকে। কারণ, বাংলার রসগোল্লাকে জিআই স্বীকৃতি পেতে ওড়িশার সঙ্গে অনেক লড়তে হয়েছে। রসগোল্লাই হল বাঙালির সব থেকে পছন্দের মিষ্টি। কিন্তু এবার দিনটি কিভাবে পেরিয়ে গেল, তা প্রায় জানতেই পারলেন না কেউ।

গত বছর অর্থাৎ ২০১৯ সালে দুর্গাপুরের মামড়া বাজারে প্রয়াত মহাদেব ঘোষের মিস্টির দোকানে এই দিনে বিনামূল্যে বিভিন্ন ধরণের রসগোল্লা বিতরণের ব্যবস্থা করা হয়। সেদিন প্রায় ২০ রকমের রঙবেরঙের রসগোল্লার গামলার পসরা সাজিয়ে রাখা হয়েছিল দোকানে। রসগোল্লার দাম ৫, ১০, ১৫ ও ২০ টাকা। সকাল ১০ টা থেকে পরবর্তী এক ঘন্টায় ক্রেতাদের বিনামূল্যে গরমাগরম রসগোল্লা খাওয়ানো হয়। এমনকি ডায়াবেটিসের কথা ভেবে প্রবীণদের জন্য রাখা হয়েছিল সুগার ফ্রি রসগোল্লাও। প্রায় দু’হাজার রসগোল্লা সেদিন দোকানে বিনামূল্যে বিলি করা হয়। আট থেকে আশি, সবাই লাইন দিয়ে রসগোল্লা খেয়েছিলেন।

এবার করোনার আবহে আলাদা পরিস্থিতি। লক কডাউনের জেরে দীর্ঘদিন মিষ্টির দোকান বন্ধ ছিল। তারপরে দোকান খুললেও প্রথম দিকে সময় বেঁধে দিয়েছিল প্রশাসন। ফলে বছরভর ব্যবসা মার খেয়েছে। এই পরিস্থিতিতে এই দিনটিতে এবার আর ক্রেতাদের জন্য বিশেষ কোনও উদ্যোগ নিতে পারেননি তাঁরা।

ফলে রসগোল্লা দিবস কবে কবে পেরিয়ে গেল রসগোল্লা প্রেমী বাঙালিদের অনেকে জানতেই পারলেন না।

aamarvlog

শিক্ষা, সংস্কৃতি, স্বাস্থ্য, রান্না সহ আরও নানা কিছু। আমার ব্লগ- হাবি জাবি নয়। যোগাযোগ- ফোন ও হোয়াটসঅ্যাপ- 9434312482 ই-মেইল- [email protected]

Feedback is highly appreciated...

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: