6 scientifically proven ways to learn faster

6 scientifically proven ways to learn faster. খুব কম সময় পড়াশোনা করে কী ভাবে বেশী নম্বর পাবে। রইল তার সহজ বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি।

6 scientifically proven ways to learn faster. খুব কম সময় পড়াশোনা করে বেশী নম্বর পাওয়ার উপায়

Study in chunks

২৫ মিনিট পড়ো। ৫ মিনিটের ব্রেক। এই ৫ মিনিটের ব্রেকে তুমি যে পড়াটা তৈরী করেছো সেটা মনন করো। মানে মনে করার চেষ্টা করো। আবার ২৫ মিনিট পড়ো। আমার ৫ মিনিটের ব্রেক। আবার ২৫ মিনিট পড়ো । এবার ২৫ মিনিটের ব্রেক। এবার ৭৫ মিনিটে যে পড়া পড়লে সেটা মনন করো। হয়ে গেলে। পড়া ছেড়ে উঠে নিজের কাজ সেরে এসো। এসে আবার পড়তে বসো । আবার একই পদ্ধতি । এইভাবে পড়লে তোমার পড়া মুখস্থ হবে খুব সহজে। পড়া মনে থাকবে বহুদিন। তোমার যদি মনে হয় তোমার পড়া বেশি তাহলে সময় বেশি লাগবে। তাহলে তুমি নিজের মত সময় ঠিক করে নাও।

২০% পড়া ৮০ % রিভাইস

একটানা বই পড়লে বা একই পড়া বেশিক্ষণ ধরে মুখস্থ করলে, একঘেয়ে লাগে। ঘুম পায়। পড়ার উৎসাহ হারিয়ে ফেলি। পড়তে পড়তে ঘুম পেয়ে যায়। এই পদ্ধতি অবলম্বনে বোর হবে না। অথচ পড়া মনে থাকবে খুব সহজে। মুখস্থ হবে তাড়াতাড়ি। যে Lesson পড়বে, সেটাকে  দুটো ভাগে ভাগ করে নিতে হবে। কুড়ি শতাংশ এবং আশি শতাংশ। কুড়ি শতাংশতে পড়তে হবে। আশি শতাংশের ক্ষেত্রে বই বন্ধ করে ওটাকে মনন করতে হবে। তারপর সেগুলো লিখে ফেলতে হবে। পরে নিজেই বই খুলে চেক করে নাও। এই বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে পড়া মনে রাখা এবং মুখস্থ করা সহজ।

Spaced Repetition

তুমি সপ্তাহের প্রথম দিন পড়া শুরু করলে। পড়লে, পড়া মুখস্থ করলে, রেখে দিলে। পরের দিন নতুন Lesson শুরু করার আগে আগের দিনের পড়াটা একবার রিভিশন করলে। তারপর নতুন পড়া শুরু করলে। তারপরের দিন আবার নতুন পড়া শুরু করার আগে, আগের দুদিনের পড়া রিভাইজ করে, সেই দিনের পড়া রেডি করতে হবে। এই ভাবে ছয় দিন পড়া হলে সাতদিনের দিন সারা সপ্তাহে যা পড়েছো সেটা রিভাইস করলে এবং প্রশ্ন-উত্তর তৈরী করে লিখে ফেলতে হবে। নিজেই বুঝবে কোন জায়গাটা অসুবিধা রয়ে গেল। সেই জায়গাটা আবার পড়ে ফেলবে। নতুন সপ্তাহ আবার একই ভাবে শুরু হবে।

নোটস নেওয়া

ক্লাসে নোট নেওয়া খুব ভালো অভ্যেস। ক্লাস টিচার যখন পড়ান তখন সময় খুব কম। সেই সময় সবটা লেখা সম্ভব নয়। ক্লাসে নোট নিতে হবে। বাড়িতে এসে যখন সেই Lesson বিস্তারিত পড়ে নাও। পড়া হলে নোটসে লেখা পয়েন্টগুলো বিস্তারিত লিখে ফেলো। একবার ক্লাসে শুনলে। নিজে পড়লে এবং লিখে ফেললে। এই তিন প্রক্রিয়ায় পড়া তোমার মুখস্থ হয়ে গেল। তুমি বুঝতেও পারবে না। তোমার পড়া মুখস্থ হয়ে গেল।

নিজেই শিক্ষক হয়ে যাও

এটা খুব মজার পদ্ধতি। এবং বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি। এক্ষেত্রে তুমি নিজেই নিজের শিক্ষক।  আগে একবার Lesson টা পড়ে নাও। সামনে কাউকে পড়াচ্ছো এমন ভাবে বিস্তারিত আলোচনা করে। তুমি তখন নিজেই নিজের শিক্ষক। প্রশ্নটা তৈরী করো। সেই প্রশ্নের কি উত্তর হবে, সেই বিষয়ে আলোচনা করো। যেমনটা টিচার ক্লাসে পড়ান।

SQ3R পদ্ধতি

আরেকটি খুব বিজ্ঞান সম্মত পদ্ধতি হচ্ছে SQ3R পদ্ধতি। প্রথমে পুরো চ্যাপ্টারটা সার্ভে করে নিতে হবে। সেখানে কি বিষয় আছে, কি পড়তে হবে তা জেনে নাও। এখানে কি Question আছে সেগুলো ভালো করে বুঝে নাও।এবার তুমি পড়তে শুরু করলে। এরপর কী করলে নিজে নিজে মনন (Revise) করলে। তারপর প্রশ্নের যে উত্তর আছে সেই অনুযায়ী তুমি পড়া মুখস্থ করলে। এবার রিভিউ (Review) করতে হবে, কোনটা ঠিক হল কোনটা ভুল হল।

এই পদ্ধতিগুলো সবগুলোই বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি। এই পদ্ধতিতে পড়া মুখস্থ করা এবং পড়া মনে রাখা যায় খুব সহজেই। 6 scientifically proven ways to learn faster. অনুসরণ করে এগিয়ো চলো।

আরও পড়ুন- রাঢ়েশ্বর শিব মন্দিরে শিবলিঙ্গের বিরল শিঙ্গার দৃশ্যের ভিডিও সহ প্রতিবেদন 

আরও পড়ুন- স্বাস্থ্য থেকে সৌন্দর্য্য, নিমপাতার জুড়ি নেই

By aamarvlog

শিক্ষা, সংস্কৃতি, স্বাস্থ্য, রান্না সহ আরও নানা কিছু। আমার ব্লগ- হাবি জাবি নয়। যোগাযোগ- ফোন ও হোয়াটসঅ্যাপ- 9434312482 ই-মেইল- [email protected]

2 thoughts on “6 scientifically proven ways to learn faster. বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে কম সময়ে পড়া মনে রাখার সহজ উপায়”
  1. […] ছাত্র-ছাত্রী ও ফ্যাকাল্টিরা।’’ কলেজ পরিচালন সমিতির সাধারণ সম্পাদক তরুণ ভট্টাচার্যের উদ্যোগে […]

Feedback is highly appreciated...

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: