চাকরি নয়, গরু নিয়ে মেতে আছেন এমবিএ পাশ দুই বোন

ইচ্ছাশক্তি আর উদ্যোমই হল অদম্য সাফল্যের চাবিকাঠি!

গরু আর গোয়াল। আর পাঁচজনের মতো ঝাঁ চকচকে অফিসের চাকরি নয়। হাওড়ার জগৎবল্লভপুরে গরু আর গোয়াল নিয়েই দিন কাটে মৌলালির সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের দুই তরুণীর। নিজেদের কীর্তির মধ্য দিয়ে যুব সম্প্রদায়ের কাছে রীতিমতো আদর্শ হয়ে উঠেছেন এই দুই বোন।

দু’জনেই এমবিএ করেছেন। কিন্তু বহুজাতিক কোম্পানির চাকরির পিছনে তাঁরা ছোটেননি। পরিবর্তে ডেয়ারির ব্যবসা শুরু করেছেন। স্বপ্ন দেখেছেন, নিজের পায়ে দাঁড়ানোর।

প্রথম উদ্যোগটা নেন দিদি। বরাবর ইচ্ছে ছিল, নিজে কিছু একটা করবেন। আইআইএম জোকার এক প্রাক্তন ছাত্রীর ডেয়ারি ব্যবসায় সাফল্যের কথা জানতে পেরে স্বপ্ন দেখতে শুরু করেন, নিজেও ডেয়ারি ব্যবসায় নামবেন। গরু নিয়ে প্রচুর পড়াশোনা করেন তিনি। কিভাবে উন্নত মানের দুধ গরুর কাছ থেকে পাওয়া যায়, শুরু থেকেই সেদিকে নজর ছিল তাঁর। গরু কত রকমের হয়, ভালো জাতের গরুর লক্ষ্মণ, গোরুর যত্ন কিভাবে করতে হয়, কি করলে গরুদের কষ্ট না দিয়ে দুধের জোগান বাড়ানো যায়, পড়াশোনা করে সব জেনে নেন তিনি। বোনকেও সঙ্গে নেন তিনি। এরপর দু’জনে মিলে হাতেকলমে অভিজ্ঞতা সঞ্চয়ের জন্য কলকাতার বিভিন্ন খাটালে ঘুরে বেড়ান। এরপর তাঁরা চলে যান উত্তরপ্রদেশ, দিল্লি, জয়পুরের বিভিন্ন খাটালে। সেখানকার গো-পালকদের সঙ্গে কথাবার্তা বলেন। খুঁটিনাটি সব জেনে নেন।

এরপরেই দু’বোন মার্কেটিংয়ে এমবিএ করে নেন। কিন্তু চাকরির পিছনে না ছুটে দুই বোন সিদ্ধান্ত নেন, এবার মন দিয়ে ডেয়ারির ব্যবসা শুরু করবেন। হাতে টাকা নেই। ব্যাঙ্কে ঋণের জন্য গেলেন দু’জনে। ঋণ মেলেনি। মেয়েরা ডেয়ারি ব্যবসা করবে, মানতে চাননি বাবা। তবে শেষ পর্যন্ত এগিয়ে আসেন মা। তিনি দুই মেয়ের হাতে তাঁর জমানো ১০ লক্ষ টাকা তুলে দেন। টাকা তো জোগাড় হল, কিন্তু গোয়াল কোথায় হবে? সেজন্য তো শহরের উপকন্ঠে কোথাও জায়গা চাই! তার উপর দুই মেয়ে এসেছে জায়গার জন্য। অনেকেই বিশ্বাস করতে পারেননি।

তবে শেষ পর্যন্ত জগৎবল্লভপুরের এক গ্রামে জমি ভাড়া পান তাঁরা। সেখানেই খুলে ফেলেন গোয়াল। রাজস্থান থেকে চারটি উন্নত প্রজাতির গরু কিনে এনেছেন তাঁরা। তিনটির বাছুরও হয়েছে। দুধ সরবরাহ শুরু হয়েছে। এছাড়াও পনির, ঘিয়ের মতো বিভিন্ন দুগ্ধজাত সামগ্রী তৈরি হচ্ছে সেখানে।

ধীরে ধীরে ব্যবসা বাড়ছে। ইতিমধ্যেই সংবাদপত্রে তাঁদের সাফল্যের খবর প্রকাশিত হয়েছে। সাফল্যের পাকদন্ডী বেয়ে এগিয়ে চলেছেন দুই তরুণী। যুব সম্প্রদায়ের অনেকেই এখন তাঁদের সম্পর্কে খোঁজখবর নিতে শুরু করেছেন। খাটাল থেকেও কেরিয়ার গড়া যায় তাহলে!

aamarvlog

শিক্ষা, সংস্কৃতি, স্বাস্থ্য, রান্না সহ আরও নানা কিছু। আমার ব্লগ- হাবি জাবি নয়। যোগাযোগ- ফোন ও হোয়াটসঅ্যাপ- 9434312482 ই-মেইল- [email protected]

Feedback is highly appreciated...

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: